ঢাকা, ২ আগস্ট সোমবার, ২০২১ || ১৮ শ্রাবণ ১৪২৮
 নিউজ আপডেট:

ভোলায় ‘স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসা’ জাতীয়করণের দাবীতে মানববন্ধন

ক্যাটাগরি : বাংলাদেশ প্রকাশিত: ৬৮১০ঘণ্টা পূর্বে


ভোলায় ‘স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসা’ জাতীয়করণের দাবীতে মানববন্ধন

ভোলা প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড কর্তৃক রেজিস্ট্রেশন প্রাপ্ত সকল ‘স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসা’ জাতীয়করণের ঘোষণার দাবীতে ভোলায় মানববন্ধন ও প্রধানমন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। 

বুধবার (২১ অক্টোবর) সকালে ভোলা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে ‘বাংলাদেশ স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসা শিক্ষক সমিতি, ভোলা জেলার আয়োজনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকীতে দাবী বাস্তবায়নের জন্য প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

‘বাংলাদেশ স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসা শিক্ষক সমিতি, ভোলা জেলার সভাপতি মোঃ জুলফিকার আলীর সভাপতিত্বে এসময় বক্তব্য রাখেন, সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ ছিদ্দিক, সিনিয়র সহ-সভাপতি মাও: মো: সাইফুল ইসলাম, মাও: মো: আমির হোসেন, যুগ্ম-সম্পাদক মোঃ হুমায়ুন কবির, সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ নুরে আলম প-িত, মোঃ মুজাম্মেল হক, দপ্তর সম্পাদক মোঃ লোকমান প্রমুখ।

আরও উপস্থিত ছিলেন, প্রচার সম্পাদক মোঃ শরীফ, আফফান তাসলিম মির্জা মোঃ মিরাজ, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক আবুল হাসান, অর্থ সম্পাদক মোঃ সাইফুল্লাহ, মোঃ মাতাবউদ্দিন মিরাজ সান, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাও: মো: মাকছুদুল ইসলাম, মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা ইয়াছমিন বেগম, নির্বাহী সদস্য মোঃ মহিবুল্লাহ, মোঃ মিজাম, মোঃ জামাল উদ্দিন, মোঃ জামাল উদ্দিনসহ নেতৃবৃন্দ।

এসময় বক্তারা বলেন, ১৯৭৮ অডিনেন্স ১৭(২) ধারা মোতাবেক মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের শর্ত পূরণ সাপেক্ষে রেজিঃ প্রাপ্ত হয়। রেজিস্ট্রেশন হওয়ার পর থেকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিধিমোতাবেক কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে আসছে। প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মতো ইবতেদায়ী মাদ্রাসাগুলো সরকারি একই সিলেবাসে শিক্ষার্থীদের পাঠদানসহ সকল কাজে অংশগ্রহণ করে। অথচ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকগণ ২২-৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতন পায়। কিন্তু ইবতেদায়ী মাদরাসার শিক্ষকগণ বেতন ভাতা পায় না। তারপরও তারা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ন্যায় শিক্ষকতা চালিয়ে যাচ্ছে। 

তারা আরও বলেন, ২০১৮ সালে ১ জানুয়ারী থেকে ১৬ জানুয়ারী পর্যন্ত শিক্ষক সমিতি অবস্থান ধর্মঘট ও অনশন চলাকালীন সময় সরকারের নির্দেশে সচিব মহোদয় আন্দোলন স্থলে এসে শিক্ষকদের দাবী মেনে নেওয়ার আশ্বাস দিলেও আজ পর্যন্ত তা বাস্তবায়ন হয়নি। 

১৫১৯টি ইবতেদায়ী মাদরাসার শিক্ষকগণ সামান্য কিছু বেতন ভাতা পেলেও বাকী রেজিস্ট্রেশন প্রাপ্ত মাদরাসার শিক্ষকগণ ৩৪ বছর যাবৎ বেতন ভাতা থেকে বঞ্চিত। বক্তারা আরও বলেন, চলমান বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ এর প্রভাবে সারাদেশের বেতন বঞ্চিত কর্মরত স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা শিক্ষকরা মানবেতর জীবন যাপন করছে। 

আগামী ১৫ নভেম্বরের মধ্যে জাতীয়করণ ঘোষণা না হলে কেন্দ্রীয় ঘোষণা অনুযায়ী জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে লাগাতার আন্দোলন চলবে বলে তারা জানান।
 

শেয়ার করুনঃ
আপনার মতামত লিখুন:
Search

সারাদেশের সংবাদ