ঢাকা, ২৭ জুলাই মঙ্গলবার, ২০২১ || ১১ শ্রাবণ ১৪২৮
 নিউজ আপডেট:

চট্টগ্রামের ৩৪নৌদস্যু অস্ত্রসহ আত্মসমর্পণে আলোর পথে

ক্যাটাগরি : বাংলাদেশ প্রকাশিত: ৬১৬৫ঘণ্টা পূর্বে


চট্টগ্রামের ৩৪নৌদস্যু অস্ত্রসহ আত্মসমর্পণে আলোর পথে

মোহাম্মদ হাসানঃ চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে ৩৪ জল বা নৌদস্যু অস্ত্রসহ আত্মসমর্পণ করে অন্ধকার জগত ছেড়ে আলোর পথে, জলদস্যুতা বা নৌদস্যুতা ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এলেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হাতে তুলে দিলেন তাদের ব্যবহৃত অস্ত্র।


আজ ১২ নভেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুর দুপুর সাড়ে ১২টায় বাঁশখালী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে র‌্যাব আয়োজিত আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে ১১টি দস্যু বাহিনীর ৩৪ জলদস্যু স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল এমপির কাছে অস্ত্র জমা দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে  আত্মসমর্পণ করেন। 


র‌্যাব-৭ সূত্রে জানা গেছে, সাগরের ত্রাস বাইশ্যা ডাকাত বাহিনীর ৩ জন, খলিল বাহিনীর ২ জন, রমিজ বাহিনীর ১ জন, বাদশা বাহিনীর ৩ জন, জিয়া বাহিনীর ২ জন, কালাবদা বাহিনীর ৪ জন, ফুতুক বাহিনীর ৩ জন, বাদল বাহিনীর ১ জন, দিদার বাহিনীর ১ জন, কাদের বাহিনীর ১ জন, নাছির বাহিনীর ৩ জন এবং অন্যান্য আরও ১০ জন সহ মোট ৩৪ দস্যু ৯০টি দেশি-বিদেশি অস্ত্র, ২ হাজার ৫৬ রাউন্ড গুলি ও কার্তুজ জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ করেছেন।


অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল এমপি। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন— স্বরাষ্ট মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় কমিটির সভাপতি শামসুল হক টুকু, ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, স্থানীয় সংসদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান, র‌্যাব মহাপরিচালক চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন, পুলিশের আইজিপি বেনজির আহমেদ, চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক ইলিয়াস হোসেনসহ বিভিন্ন পর্যায়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন র‌্যাব-৭ অধিনায়ক লে. কর্ণেল মশিউর রহমান জুয়েল।


র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ গণমাধ্যমকে জানান, চট্টগ্রাম র‌্যাব-৭ বঙ্গোপসাগর ভিত্তিক জলদস্যুতা দমন এবং দুর্ধর্ষ জলদস্যুদের আত্মসমর্পণ করাতে দীর্ঘদিন মাঠে কাজ করে যাচ্ছিল। এরই ধারাবাহিকতায় আজ ১১ বাহিনীর ৩৪ জলদস্যু আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে তাদের নিজ নিজ অস্ত্র স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে জমা দিয়ে নিজেদের র‌্যাবের হাতে সপে দেন এবং দস্যুতা ছেড়ে স্বাভাবিক জীবন যাপনের প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। এই সময় আত্মসমর্পণকারী জলদস‌্যুদের স্বজন ও পরিবারের সদস্যরাও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, অস্ত্রসমর্পণের মাধ্যমে দস্যুদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনতে দীর্ঘদিন ধরেই কাজ করছে র‍্যাব। এর আগে কক্সবাজারেও বিপুল সংখ্যক জলদস্যু আত্মসমর্পণ করেন।

শেয়ার করুনঃ
আপনার মতামত লিখুন: