ঢাকা, ২৬ অক্টোবর মঙ্গলবার, ২০২১ || ১০ কার্তিক ১৪২৮
 নিউজ আপডেট:

শেখ হাসিনার দূরদর্শিতার কারনে দেশের মানুষ ভাল আছে হুইপ গিনি

ক্যাটাগরি : বাংলাদেশ প্রকাশিত: ৮০১ঘণ্টা পূর্বে


শেখ হাসিনার দূরদর্শিতার কারনে দেশের মানুষ ভাল আছে হুইপ গিনি

 

সাহিম রেজা, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ


শেখ হাসিনার দূরদর্শিতা কারনে দেশের মানুষ ভাল আছে হুইপ মাহাবুব আরা বেগম গিনি এমপি। 

আজ বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর)  গাইবান্ধা সদর উপজেলার বোয়ালী ইউনিয়ন হয়ে ফুলছড়ি উপজেলা হেডকোয়াটারে যাতায়াতের সহজ মাধ্যম বোয়ালী ইউপি অফিস-ফুলছড়ি উপজেলা ভায়া স্কুলের বাজার সড়কের ব্রীজের নির্মান কাজের উদ্বোধনের সময় মাননীয় হুইপ উপরোক্ত কথা বলেন। 

তিনি আরো বলেন, দীর্ঘদিন পূর্বে ব্রিজটি ভেঙ্গেগেছে। কিন্তু আমি অনেকবার ব্রীজটি নির্মান করার চেষ্টা করে ব্যার্থ হয়েছি। অবশেষে আমার বিশেষ বরাদ্দ ২০ কোটি টাকা হতে প্রায় ২ কোটি টাকা ব্রীজটির নির্মানে বরাদ্দ দিয়েছি। ব্রিজটির নির্মাণকাজ দ্রুত শেষ হলে বোয়ালী ইউনিয়নের পাশাপাশি ফুলছড়ি উপজেলাবাসী উপকৃত হবে। 

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন গাইবান্ধা এলজিইডি নির্বাহী প্রকৌশলী আহসান কবির,  সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী  আবুল কালাম আজাদ মোল্লা, ফুলছড়ি উপজেলা প্রকৌশলী ইমতিযাজ আহম্মেদ ইমু, গাইবান্ধা জেলা আওয়ামীলীগের শিল্প ও বানিজ্য বিষয়ক সম্পাদক মোঃ নওশা আলম, বোয়ালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ এর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মিলন কুমার দেব, সাধারন সম্পাদক আব্দুল মতিন সরকার, বোয়ালী ইউনিয়ন যুবলীগ এর সভাপতি তৈহিদুর রহমান তুহিন, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি মোঃ রাশেদ খান মেনন প্রমুখ। 

২০১৬ সালের বন্যায় ব্রীজটি ভেঙ্গে যাওয়ার ৫ বৎসর পরে নির্মান কাজ শুরু হওয়ায় সদর উপজেলার বোয়ালী ইউনিয়নের পাশাপাশি ফুলছড়ি উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়নবাসী আনন্দ প্রকাশ করেন। 

উল্লেখ্য, অগ্রাধিকার ভিত্তিতে গুরুত্বপূর্ন পল্লী অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প ৩ (IRIDP-3) আওতায় গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার মারুফ ট্রেডার্স নামের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ব্রীজটি নির্মানের দায়িত্ব পেয়েছেন।

শেয়ার করুনঃ
আপনার মতামত লিখুন:
আরও সংবাদ পড়ুন
Search
গাইবান্ধায় কিশোরী লিমা হত্যা মামলার আসামীদের গ্রেপ্তার দাবিতে মানববন্ধন  গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের ধর্মপুর পিএন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর মেধাবি ছাত্রী লিমা আক্তার হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে  হত্যাকান্ডের পর থেকেই দফায় দফায় বিক্ষোভ মিছিল,সড়ক অবরোধ সহ মানববন্ধন  করে আসছে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।    বুধবার (২০ অক্টোবর) দুপুরে  গাইবান্ধা শহরের ডিবি রোডে ঘন্টাব্যাপী এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য দেন, নারী মুক্তি আন্দোলনের সদস্য সচিব নিলুফার ইয়াসমিন শিল্পী, শোভাগঞ্জ ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক আবদুল্লাহ আল মামুন,নিহত লিমার বাবা আব্দুল লতিফ, বড় ভাই লিমন মিয়া, ছোট ভাই লিটু মিয়া, কামরুল ইসলাম, আহসান হাবীব,রিমা রিক্তার,পলি বর্মন,আব্দুল আহাদ, শাহাদাৎ হোসেন সিপার, মোস্তাফিজুর রহমান লাভলু, হিমুন দেব বিশ্ব সহ অন্যরা।   গত ২৩ সেপ্টেম্বর লিমা স্থানীয় একটি কোচিং সেন্টারে যাওয়ার পথে স্থানীয় বখাটে শাকিল অপহরন করে নিয়ে যায়। পরে ১০ অক্টোবর চট্রগ্রাম ইপিজেড এলাকার শাকিলের মামা সোলায়মান আলীর ভাড়া বাসা থেকে লিমার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এই ঘটনায় শাকিল ও তার মামা সোলায়মান আলীকে গ্রেপ্তার করা হলেও আসামী হাফিজুর রহমান, হৃদয় মিয়া, শাকিলের বাবা শহিদুল ইসলাম সহ অন্যান্যদের এখনও গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। দ্রুত আসামীদের গ্রেপ্তার করে বিচার দাবি জানান বক্তারা।

গাইবান্ধায় কিশোরী লিমা হত্যা মামলার আসামীদের গ্রেপ্তার দাবিতে মানববন্ধন গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের ধর্মপুর পিএন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর মেধাবি ছাত্রী লিমা আক্তার হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে হত্যাকান্ডের পর থেকেই দফায় দফায় বিক্ষোভ মিছিল,সড়ক অবরোধ সহ মানববন্ধন করে আসছে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। বুধবার (২০ অক্টোবর) দুপুরে গাইবান্ধা শহরের ডিবি রোডে ঘন্টাব্যাপী এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য দেন, নারী মুক্তি আন্দোলনের সদস্য সচিব নিলুফার ইয়াসমিন শিল্পী, শোভাগঞ্জ ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক আবদুল্লাহ আল মামুন,নিহত লিমার বাবা আব্দুল লতিফ, বড় ভাই লিমন মিয়া, ছোট ভাই লিটু মিয়া, কামরুল ইসলাম, আহসান হাবীব,রিমা রিক্তার,পলি বর্মন,আব্দুল আহাদ, শাহাদাৎ হোসেন সিপার, মোস্তাফিজুর রহমান লাভলু, হিমুন দেব বিশ্ব সহ অন্যরা। গত ২৩ সেপ্টেম্বর লিমা স্থানীয় একটি কোচিং সেন্টারে যাওয়ার পথে স্থানীয় বখাটে শাকিল অপহরন করে নিয়ে যায়। পরে ১০ অক্টোবর চট্রগ্রাম ইপিজেড এলাকার শাকিলের মামা সোলায়মান আলীর ভাড়া বাসা থেকে লিমার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এই ঘটনায় শাকিল ও তার মামা সোলায়মান আলীকে গ্রেপ্তার করা হলেও আসামী হাফিজুর রহমান, হৃদয় মিয়া, শাকিলের বাবা শহিদুল ইসলাম সহ অন্যান্যদের এখনও গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। দ্রুত আসামীদের গ্রেপ্তার করে বিচার দাবি জানান বক্তারা।


সারাদেশের সংবাদ